দুর্নিতি বাংলাদের উন্নয়নের সামনে বড় বাধা। অতিতের সীমাহিন দূর্নিতির করনে দেশের সার্বিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হয়েছে বারংবার বর্তমানেও এই দূর্নিতি বিদ্যমান রয়েছে এবং দেখা যাচ্ছে এই দুর্নিতির কারনে মানুষের মধ্যে একরকম মনুষত্ভীনতা চলে এসেছে এবং মানুষ নিজেদের স্বার্থের জন্য দূর্নিতির এই ছায়াতল থেকে বেরোতে পারছে না

অর্থমন্ত্রী কি আমাদের সাথে তামাশা করেন? বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। সম্প্রতি দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের এক টকশো অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন বিএনপির এই সংসদ সদস্য।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) এর তথ্য মতে গত ৫ বছরে বাংলাদেশ থেকে ১ হাজার ২৪টি ঘটনার প্রমাণ তারা পেয়েছে। যেখানে টাকা বিদেশে পাচার হয়ে গেছে। এই ১ হাজার ২৪টি ঘটনার প্রমাণ তারা দুদককে দিয়েছে, সিআইডি কে দিয়েছে, বাংলাদেশ পুলিশকে দিয়েছে। আপনাদের সবার কাছে ১ হাজার ২৪টি ঘটনার সমস্ত তথ্য প্রমান রয়েছে। অর্থমন্ত্রী কি আমাদের সাথে তামাশা করেন? যদি ওনার ইচ্ছে থাকত তাহলে তিনি প্রতিটি প্রতিষ্ঠান থেকে তথ্য সংগ্রহ করতে পারতেন।’

পরে তিনি বলেন, ’হতে পারে দুটি কারণে তিনি তথ্য সংগ্রহ এড়িয়ে যেতে চান, প্রথমটি তার অযোগ্যতা এবং অসততা, আর দ্বিতীয়টি হতে পারে ওনার দলের ভিতরের এমন কোনো রাঘব বোয়ালদের নাম উঠে আসতে পারে, যেটা উঠে আসলে পরে তার দলের মধ্যে টিকে থাকা কঠিন হয়ে যাবে।’

রুমিন ফারহানা আরও বলেন, ’আচ্ছা আমরা বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট এর কথা বাদ দেই, আমরা যদি একটু সংসদের দিকে তাকাই পাপুলের কথা নিশ্চয়ই আমাদের সকলের মনে আছে। যিনি অর্ধ শত কোটি টাকা ব্যয় করে সংসদে সতন্ত্র আসন নিয়ে বসেছেন এবং তার স্ত্রীকে সংসদ সদস্য বানিয়েছেন। সেখানে জাতীয় পার্টির একজন মেম্বার প্রার্থীকে কিভাবে বসিয়ে দিয়ে এইচটি ইমাম সাহেবের সরাসরি চিঠির মধ্য দিয়ে সেখানে লোকাল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের তার পক্ষে কাজ করার জন্য বলা হয়েছে। এখতা গণমাধ্যমের কল্যাণে আমরা সকলেই জানি। সেই পাপুল সাহেবের এ্যাকাউন্টে তো ১৪ ’শ কোটি টাকা পাচারের কথা তো সকলেই জানে।’

তিনি বলেন, বাংলাদেশ নয়, কুয়েতের আদালত তাকে নৈতিক স্খলনের দায়ে সাজা দিয়েছে। সেই সাজার পেক্ষিতে তার সংসদের মেম্বারশীপও চলে গেছে। পাপুল সাহের টাকা পাচারের বিষয়ে অর্থমন্ত্রী কিছু জানেন না? তিনি কি ঘুমিয়ে ছিলেন?’

বিএনপির এই সাংসদ বলেন, ’কিছুদিন পূর্বে নটোটের এমপি শিমুলের স্ত্রী জান্নাতির ১২ কোটি টাকার বিশাল বাড়ি আমরা কানাডায় দেখেছি। উনি একজন হাউজ ওয়াইফ, বাংলাদেশ থেকে পাখা মেলে টাকাটা গেলো কি ভাবে কানাডায় এটা অর্থমন্ত্রী চোখে দেখেন না?’


সরকারের অনেক এমপি মন্ত্রী নানা নেতিবাচক কর্মান্দ এবং সীমাহিন দূর্নিতির সাথে জড়িয়ে আলোচনায় আসেন মাঝে মাঝে এবং তাদের এই সকল কর্মকান্ড নিয়ে মানুষের মধ্যে দেখা যায় বিরুপ প্রতিক্রিয়া তাদের দুর্নিতির ফলে দেখা যায় সরকারের নানা উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হয়

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

শাকিব খানকে নিয়ে মুনমুনের সেই ভবিষ্যৎবানী সত্যি হলো

26 July, 2021 | Hits:104

বাংলাদেশের সিনেমা অঙ্গনের বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা শাকিব খানের সিনেমা নাম্বার ওয়ান হিরো হিসেবে তিনি স্বীকৃত। ক্...

পদ্মা সেতুর সেই পিলার পরিদর্শনে মন্ত্রণালয়ের টিম

24 July, 2021 | Hits:136

পদ্মা সেতুতে ফের ধাক্কা লাগার ঘটনা তিনি এখন সারাদেশে চলছে ব্যাপক আলোচনা মূলত গত শুক্রবার ভোরবেলা ফেরিটিন পদ্মা সেতুর পি...