শেখ ফজলে নূর তাপস একজন বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত একজন সংসদ সদস্য
তাপস পেশায় একজন ব্যারিস্টার। তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সদস্য সচিব। তার নেতৃত্বে চলছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদে। তাপস ২০০৮ সালে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। তার নির্বাচনী এলাকা হলো ঢাকা-১০।



ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচন এবছরের ডিসেম্বরে করার কথা ভাবছে আওয়ামী লীগ। এজন্য প্রস্তুতিও নেয়া হয়েছে। এদিকে নির্বাচনে ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলামই তাদের প্রার্থী থাকবেন। দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকনের পরিবর্তে ভাবা হচ্ছে শেখ পরিবারের ঘনিষ্ঠ আত্মীয় ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ফজলে নূর তাপস বা ঢাকা-৯ আসনের সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরীকে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে দেশ রুপান্তর।



আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ওই নেতারা বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র ব্যবসায়ী ব্যক্তিত্ব আতিকুল ইসলামকে বিশেষ বিবেচনায় নিয়ে দ্বিতীয় দফায়ও তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে। বিশেষ ওই বিবেচনাটি হলো- খুব কম সময়ের জন্য তিনি মেয়র হয়েছেন। তাই কর্মদক্ষতা প্রমাণে তাকে আরো সময় দিতে চান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তাছাড়া ঢাকা উত্তরে বসবাস করা বেশিরভাগ মানুষ ’উচ্চবিত্ত’ হওয়ায় আতিকুলই সেখানে ভালো করতে পারবেন বলে মনে করে আওয়ামী লীগ।

দলটির সম্পাদকমণ্ডলীর এক সদস্য বলেন, দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হিসেবে ফজলে নূর তাপস ও সাবের হোসেন চৌধুরী- এ দুজনকেই এগিয়ে রাখা হয়েছে। এ দুই নেতার মধ্যে রাজনৈতিক পরিচয়ও আছে, সুশীল ভাবও আছে। এগুলো বিবেচনায় নিয়ে দল তাদেরই উপযুক্ত মনে করছে।

সম্পাদকমণ্ডলীর ওই সদস্য আরো বলেন, শেখ ফজলে নূর তাপস নিজেও প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে মেয়র নির্বাচন করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এক সদস্য বলেন, বর্তমান মেয়র সাঈদ খোকন দায়িত্বপালন করতে গিয়ে নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়ায় তার ওপর থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন দলের শীর্ষ নেতা শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগ মনে করে, দক্ষিণে প্রার্থী পরিবর্তন করতেই হবে। তাছাড়া বিজয় ছিনিয়ে আনা অসম্ভব হয়ে পড়বে। তিনি বলেন, ডেঙ্গুর বাহক এডিস মশা নিয়ে অনেকেই মেয়রের ব্যর্থতার কথা বলছেন। তাই ডিসেম্বরে নির্বাচন করতে হলে সাবের বা তাপসের মতো পরিচ্ছন্ন রাজনীতিক নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে। এ দুজনের রাজনীতির বাইরেও দুটি পরিচয় আছে। সাবেরের ব্যবসায়ী ও আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিতি রয়েছে। আর তাপস বঙ্গবন্ধু পরিবারের ঘনিষ্ঠ ও ১৫ আগস্ট বাবা-মা হারিয়ে এতিম হয়ে বড় হয়েছেন। এর ফলে তাপস পাবলিক ’সিমপ্যাথি’ পাবে বলে মনে করা হয়।



আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর আরেক সদস্য বলেন, ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পরিকল্পনায় থাকলেও এবার একই দিনে ভোট হচ্ছে না ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে।

নির্বাচন কমিশনের এক কর্মকর্তাও বলেন, ’চলতি বছরেই হতে যাচ্ছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির নির্বাচন। এ ক্ষেত্রে ডিসেম্বরের শেষদিকে নির্বাচন হবে। ৩০ ডিসেম্বরের সম্ভাবনাই বেশি।’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক বলেন, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে। একই কথা বলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমানও।

প্রসঙ্গত,২০১১ খ্রিস্টাব্দের ১৯ নভেম্বর জাতীয় সংসদে স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) (সংশোধনী) বিল, ২০১১ পাসের মাধ্যমে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন বিলুপ্ত করা হয় এরফলে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নামে স্বতন্ত্র দুইটি কর্পোরেশন গঠন করা হয়। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ৩৬টি এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ৫৬টি ওয়ার্ডের সমন্বয়ে গঠিত হয়