বাংলাদেশে সীমাহীন দুর্নীতির চিত্র এর আগে অনেকবার মানুষ দেখেছে। সরকারের ভিতরে থাকা কিছু অসাধু কর্মকর্তারা অবৈধ পথ অবলম্বন করে কোটি কোটি টাকা উপার্জন করছে এবং অর্থের পাহাড় করে তুলেছে তারা। সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশের ব্যাংকগুলোর অবস্থা খুবই নাজুক। ব্যাংকিং তথা অর্থনৈতিক খাতগুলোর উচ্চ পর্যায়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা বিপুল পরিমাণ অর্থ পাচার করেছে বিদেশে। নামে-বেনামে বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করে তারা নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধি করে চলেছে।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display




দেশের আলোচিত আরডিসি যশোরের মণিরামপুরের কাশীপুর গ্রামের নাজিম উদ্দীন। মনিরামপুর পৌর এলাকার গাংড়া মৌজায় তার শ্বশুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক (অব.) আব্দুর রাজ্জাকের নামে ৪৬ লাখ টাকায় ১৪.৬৯ শতক জমি কিনেছেন।

জমির মালিক আকবর আলী জানান, স্থানীয় মোসলেম উদ্দীনের মধ্যস্থায় ৪৬ লাখ টাকায় তিনি ওই জমি বিক্রি করেন। যা আব্দুর রাজ্জাকের জামাই ম্যাজিস্ট্রেট নাজিম উদ্দীন কিনেছেন। কিন্তু দলিল করা হয় নাজিম উদ্দীনের শ্বশুর আব্দুর রাজ্জাকের নামে।

এছাড়া মনিরামপুর মৌজায় ৮ শতক জমি ১৩ লাখ কেনা হয়েছে। যা নাজিম উদ্দীনের স্ত্রী সাবরিনা সুলতানার নামে রেজিস্ট্রি হলেও সেখানে স্বামীর নাম বাদ দিয়ে বাবা আব্দুর রাজ্জাকের নাম দেওয়া হয়েছে। এই জমির উপর নির্মাণ করা হচ্ছে ৫-তলা বিশিষ্ট বিশাল অট্টালিকা। ইতোমধ্যে যার ৪-তলা সম্পন্ন হয়েছে। খুব সৎ অফিসার। ঠিক কিনা?




বর্তমান সময়ে সরকারের মধ্যে থাকা অনেক অসাধু নেতাকর্মীরা তাদের নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য অনেক কুকর্মে লিপ্ত হচ্ছে। প্রশাসন কে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে এবং জনগণের চোখে ধুলো দিয়ে অরাজকতা সৃষ্টি করে চলেছে তারা।সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে তাদের সর্বস্ব কেড়ে নিয়ে নিজেদের পকেট মোটা করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে তারা। ক্ষমতার ট্যাগ ব্যবহার করে বিপুল পরিমাণ অর্থের পাহাড় জমিয়েছে এইসব অসাধু লোকেরা

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

Error: No articles to display