বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে ’ঈদের পর বড় ধরনের শোডাউন’ এর ঘোষণা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি ও তার অঙ্গ সঙ্গঠনের কিছু নেতা।
স্থানীয় সময় সোমবার রাতে নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে অনুষ্ঠিত এক যৌথ আলোচনা সভা থেকে একথা জানান তারা।

সভায় যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি, যুক্তরাষ্ট্র যুবদল, যুক্তরাষ্ট্র জাসাস, নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্য বিএনপি ও নিউ ইয়র্ক নগর বিএনপির শীর্ষ কর্মকর্তারা অংশ নেন। উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতা ও মূলধারার রাজনীতিক আকতার হোসেন বাদল, নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্য বিএনপির নেতা অলিউল্লাহ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, মাহফুজুল মাওলা নান্নু ও সাঈদুর রহমান সাঈদ, যুক্তরাষ্ট্র জাসাসের সভাপতি আবু তাহের, যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা এম এ বাতিন, নিউ ইয়র্ক নগর বিএনপির নেতা হাবিবুর রহমান সেলিম রেজা, রুহুল আমিন নাসির ও জসীমউদ্দিন।

তারা জানান, ঈদের পর বড় ধরনের শোডাউনের মাধ্যমে বিভক্ত যুক্তরাষ্ট্র বিএনপিকে এক মোহনায় আনা হবে। এ ব্যাপারে লন্ডনে বসবাসরত তারেক রহমানের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হবে।

জাতিসংঘ, স্টেট ডিপার্টমেন্ট ও হোয়াইট হাউজের সামনে র‌্যালি করার ব্যাপারেও সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান তারা।
বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তি আন্দোলন নিয়ে ’বিএনপির হাই কমান্ডে সমন্বয়হীনতার’ অভিযোগ করে নেতারা বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে আন্দোলনের মাধ্যমেই মুক্ত করতে হবে। তবে সে আন্দোলন কোনোভাবেই ধ্বংসাত্মক করা যাবে না। সমগ্র জনগোষ্ঠিকে আন্দোলনে একীভূত করতে পারলেই সরকার বাধ্য হবে তাকে মুক্তি দিতে।

নেতারা জানান, ১/১১ পরবর্তী মঈন-ফখরুদ্দিন আমলের মতো নিউ ইয়র্ক থেকেই আন্দোলন শুরু করা হবে এবং তা সারাবিশ্বে বিএনপি পরিবারে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। মার্কিন কংগ্রেস, স্টেট ডিপার্টমেন্ট, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও জাতিসংঘে বাংলাদেশের সামগ্রিক পরিস্থিতির আলোকে স্মারকলিপি দেওয়ারও সিদ্ধান্ত হয়েছে।