ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব মহাসড়কে প্রায় ৫৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে গাড়ির দীর্ঘ সারির কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন মহাসড়ক দিয়ে চলাচলকারী যাত্রী ও চালকরা।
দীর্ঘসময় যানজটে বসে থাকতে থাকতে বিরক্ত যাত্রীরা। এরই মধ্যে ঘটেছে কিছু বিক্ষিপ্ত ঘটনা। বঙ্গবন্ধু সেতুর দুইপাশে প্রচণ্ড যানজটের কারণে ঘরে ফেরা মানুষগুলো সময় কাটাতে যানবাহন থেকে নেমে ক্রিকেট খেলায় মেতেছেন।
মঙ্গলবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব মহাসড়কে যাত্রীদের বাস থেকে নেমে ক্রিকেট খেলতে দেখা যায়। আবার তাদের ওই ক্রিকেট খেলা উপভোগ করেন বিভিন্ন বাসে অপেক্ষারত যাত্রীরা।
এদিকে, বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের বিক্রমহাটি এলাকায় যানজটের প্রতিবাদে মহাসড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছেন উত্তরবঙ্গগামী যাত্রীরা। এ সময় তারা সড়কের পাশে থাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোকনুজ্জামানের গাড়িতে আগুন দেয়া হয়।
স্থানীয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব মহাসড়কে এত দীর্ঘ সারির যানজটের কারণে বিভিন্ন যানবাহনে থাকা সব বয়সী মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে। সময় কাটাতে পরবর্তীতে তারা সবাই রাস্তায় নেমে পড়েন। এ সময় সবাই মিলে ক্রিকেট খেলা শুরু করেন।
মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত মহাসড়কের বঙ্গবন্ধু সেতুপুর্ব থেকে মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্লা পর্যন্ত গাড়ির দীর্ঘ সারি দেখা যায়। বিভিন্ন সড়কের পাশে মানুষ পরিবহনের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন। মহাসড়কের বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব, এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড, রাবনা বাইপাস, বাঐখোলা, করটিয়া হাটবাইপাস, নাটিয়াপাড়া ও পাকুল্লায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।
সাধারণ যাত্রীরা জানান, ঢাকাগামী যানবাহন ধীরগতিতে চললেও উত্তরবঙ্গগামী যানবাহন একেবারেই বন্ধ রয়েছে। এতে যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। মঙ্গলবার ভোর রাত থেকে এখন পর্যন্ত মহাসড়কের বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব হতে মির্জাপুর উপজেলার পাকুল্লা পর্যন্ত রয়েছে গাড়ির দীর্ঘ সারি। এছাড়া সড়কে বিভিন্ন এলাকায় পরিবহনের অপেক্ষায় দাড়িয়ে রয়েছেন অসংখ্য যাত্রী। তবে এখনও মহাসড়কের বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব, এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড, রাবনা বাইপাস, বাঐখোলা, করটিয়া হাটবাইপাস, নাটিয়াপাড়া ও পাকুল্লায় যানজট অব্যাহত রয়েছে।
টাঙ্গাইল ট্রাফিক পুলিশ বিভাগের উপ-পরিদর্শক (টিএসআই) জাহিদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সকাল থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব পারে টোলপ্লাজা বন্ধ থাকায় এ যানজটের সৃষ্টি হয়। বেলা সাড়ে ১১টায় যানজটে ক্ষুব্ধ উত্তরবঙ্গগামী যাত্রীরা টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বিক্রমহাটিতে এ আগুন দেয়ার ঘটনাটি ঘটায়। এ সময় তারা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোকনুজ্জামানের গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।
বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানা পুলিশের (ওসি) মোশারফ হোসেন জানান, সোমবারের তুলনায় মঙ্গলবার গাড়ির বাড়তি চাপ রয়েছে। ফলে থেমে থেমে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব পার হতে প্রায় ৩০ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। সিরাজগঞ্জ থেকে গাড়ি টানতে না পাড়ায় এই যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত যানজট কমে যাবে।