সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষিক তানভী ঝুমুর , গত ১০ মাস ধরে উপস্হিত নেই বিদ্যালয়ে, অথচ বেতন ঠিকই উত্তোলন করে চলেছেন, বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ছাড়াও ঝুমুরের আরো একটি পরিচয় আছে, তিনি সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এর দ্বিতীয় স্ত্রী ।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

স্কুলে ১০ মাস উপস্হিত না থেকেও বেতন তুলে নেবার অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফরের মহাপরিচালকের নির্দেশক্রমে তাকে বরখাস্ত করা হয়।

এ নিয়ে সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালকের নির্দেশক্রমে তাকে বরখাস্ত করা হয়

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরে এমপি রতনের প্রভাবে ও তদবির করিয়ে তিনি ডেপুটেশনে আসেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার তেঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, অসুস্থতাজনিত কারণ দেখিয়ে মাত্র একদিনের ছুটি নিয়েছিলেন তানভী ঝুমুর। অথচ এরপর থেকে গত ১০ মাস ধরে বিদ্যালয়ে আসেননি এই শিক্ষিকা।

অনুপস্থিত থেকেও কীভাবে নিয়মিত বেতন নিয়ে যাচ্ছেন এ শিক্ষিকা সে বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিদ্যালয়ের কয়েক সদস্য জানিয়েছেন, এমপির স্ত্রী হওয়ায় এ বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তারা মুখ খুলতে নারাজ। আর এ সুযোগ কাজে লাগিয়েছেন এমপি রতনের দ্বিতীয় স্ত্রী তানভী ঝুমুর।

তানভি ঝুমুর এখন কোথায় এমন প্রশ্নের উওর জানা নেই জেলা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের কর্তাদের তেমনি জানেন না সদর উপজেলার তেঘরিয়া ও তাহিরপুরের তরং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও।

বেশ কয়েকটি সূত্র নিশ্চিত করেছে, অতীতের ন্যায় বর্তমানেও সুনামগঞ্জে থাকছেন না তানভী ঝুমুর। কিছুদিন আগেও ঢাকায় ন্যাম ভবনে স্বামী এমপি রতনের ফ্ল্যাটে থাকলেও এখন সেখানেও নেই ঝুমুর।

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

Error: No articles to display